Web Design Tutorial – ব্লগার ডট কম কি এবং এর থিম কিভাবে কাস্টমাইজেশন করবেন?

এই টিউনে আমি ব্লগার [ডট] কমের ইতিহাস ও এই প্লাটফর্ম ব্যবহারের সুবিধা ও সীমাবদ্ধতাগুলো নিয়ে আলোচনা করেছি। বোনাস হিসেবে এই টিউনটিতে আপনি ব্লগার [ডট] কমের কিছু দুর্লভ ছবি নিচে দেখতে পাবেন।

ব্লগার ডট কম কি?

blogger history

ব্লগার [ডট] কম হল ওয়েবসাইট তৈরির একটি ফ্রি প্লাটফর্ম, আর গুগল হল এটির হোস্টঃ সহজ ভাষাই এর মানে গুগল হচ্ছে এর মালিক। এটা খুবই ইউজার ফ্রেন্ডলি একটা প্লাটফর্ম। আপনি খুবই সহজে এই প্লাটফর্মটি ব্যবহার করে আপনার মনমত একটা ওয়েবসাইট বানিয়ে সেটাকে কাস্টমাইজ করতে পারবেন। তবে ব্লগার ডট কম দিয়ে আপনি মুলত একটি সাবডোমেইন তৈরি করতে পারবেন যেটার শেষে থাকবে .blogspot.com। এর মানে হল আপনি যে নামটি দিয়ে ব্লগ খুলবেন তার ওয়েব এড্রেস হবে নাম.blogspot.com

ব্লগার ডট কমের ইতিহাস

ব্লগার [ডট] কম সাইটটি শুরু হয়েছিল ১৯৯৯ সালে। পাইরা লাবস নামক একটি আমেরিকান কোম্পানি প্রথম এই প্লাটফর্মটি তৈরি করে। এরপর ২০০৩ সালে গুগোল এটিকে পাইরা লাবস এর কাছ থেকে কিনে নেয়। তারপর থেকে এখন পর্যন্ত এই সাইটির দেখাশুনা, আপগ্রেডেশন ও সার্বিক উন্নয়ন পুরোপুরি গুগোলের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। বর্তমানে সারা পৃথিবীতে প্রায় কয়েক কোটি ব্লগার ডট কমের ইউজার আছে এবং প্রায় ১৫ লক্ষ ওয়েবসাইট, মানে ফুল ডোমেইন, এই প্লাটফর্মকে কনটেন্ট ম্যানেজমেণ্ট সিস্টেম হিসেবে ব্যবহার করে।

সুবিধা ও সীমাবদ্ধতা

অসংখ্য ফ্রি থিম বা টেমপ্লেটঃ ব্লগার [ডট] কমে আপনি Theme অপশন থেকে মোট ৩৫টি অফিসিয়াল থিম বা টেমপ্লেট পাবেন। এর যে কোন একটি আপনি পছন্দ করে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য সিলেক্ট করতে পারেন। এছাড়াও গুগলে “Free Blogger Template” লিখে সার্চ করে আপনার পছন্দের একটা থিম ডাউনলোড করে এই প্লাটফর্মে Install করতে পারেন।

ইচ্ছামত থিম বা টেমপ্লেট এডিটিংঃ ব্লগার [ডট] কম মূলত XML ল্যাঙ্গুয়েজ দিয়ে তৈরি একটি প্লাটফর্ম যেটি HTML, CSS, Java ScriptJquery সাপোর্ট করে। এই প্লাটফর্ম ব্যবহার করার একটা বড় সুবিধা হল নিজের ইচ্ছামত থিম বা টেমপ্লেট এডিটিং করার স্বাধীনতা, যেটা আপনি Theme অপশনে গিয়ে Edit HTML-এ ক্লিক করে করতে পারেন। আপনি যদি ওয়েব ডেভেলপমেন্টে ক্যারিয়ার গড়তে চান, তবে ব্লগার [ডট] কম আপনার জন্য হবে সবচেয়ে আদর্শ প্রাকটিস করার জায়গা। ওয়ার্ডপ্রেস বা জুমলার মত বড় প্লাটফর্মে যাওয়ার পূর্বে, আপনি এখানে প্রাকটিস করে HTML, CSS ও Java Script-এ আপনার স্কিলকে আরো ঝালিয়ে নিতে পারেন।

ফ্রি হোস্টিংঃ আপনি যদি একটি ডোমেইন নেম কিনে থাকেন আর বছর বছর হোস্টিং এর পেছনে টাকা খরচ না করতে চান, তাহলে আপনি চাইলে ব্লগার ডট কমে ফ্রি হোস্টিং করতে পারবেন। এই হোস্টিং সার্ভিসটি পুরোপুরি ফ্রি এবং প্রায় আনলিমিটেড। এর মানে হচ্ছে কোন নির্দিষ্ট ব্যান্ডউইথ এর ঝামেলা নাই। আর যেহুতে এটা খোদ গুগলের সার্ভারে থাকে, অতিরিক্ত ভিজিটরের কারনে সার্ভার কখনও ডাউন হবে না।

১৫ জিবি ডিস্ক স্পেসঃ ব্লগার [ডট] কম গুগলের একটি নিজস্ব প্রোডাক্ট, তাই গুগলের অন্যান্য যত প্রোডাক্ট আছে সবগুলোর ডিস্ক স্পেস আপনার ওয়েবসাইটের সাথে যুক্ত হবে। এর মানে হল জিমেইল, গুগল ড্রাইভ, পিকাসা ও গুগল ফটোসের সমস্ত ডিস্ক স্পেস আপনার সাইটের ইমেজ ও টিউনের স্টোরেজের জন্য ব্যবহৃত হবে।

সার্চ ইঞ্জিন ফ্রেন্ডলিঃ যেহুতু গুগলের নিজস্ব সার্ভারে ব্লগার [ডট] কমের সাইটগুলো হোস্টিং হয়ে থাকে, তাই আপনি যদি ব্লগার ব্যবহার করে টিউন পাবলিশ করেন এটা খুবই দ্রুত গুগলে index হবে। এর মানে হচ্ছে আপনার সাইটটি অনেক তাড়াতাড়ি গুগলের সার্চ রেজাল্টে আসবে। এই প্লাটফর্মটিতে আপনি আরো পাচ্ছেন Custom 404 Page, Custom URL Redirects, Sitemap.xml, Custom robots.txt ও Custom Robots Header Tags সুবিধাগুলো। এছাড়াও Post Edit পেজে আপনি পাচ্ছেন সরাসরি Search Description দেওয়ার সুবিধা।

অনেক ভাষা সাপোর্টঃ ব্লগার [ডট] কম প্রায় ৬০টি ভাষা সাপোর্ট করে। আপনি যদি বাংলায় আপনার লেখা পাবলিশ করতে চান, তবে Settings অপশনে গিয়ে Language and formatting-এ ক্লিক করে বাংলা ভাষা সিলেক্ট করে নিতে পারবেন।

১০০ লেখক সাপোর্টঃ আপনি যদি আপনার নিজের পাশাপাশি অন্য কাউকে দিয়ে আপনার ওয়েবসাইটে টিউন লিখাতে বা এডমিন হিসেবে চান, তবে ব্লগার [ডট] কমে আপনি সর্বোচ্চ ১০০ জনকে ইনভাইট করতে পারবেন।

ব্লগার [ডট] কমের সীমাবদ্ধতা

ব্লগার [ডট] কম ব্যবহার করার অনেকগুলো সীমাবদ্ধতা আছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য পয়েন্টগুলো নিচে আলোচনা করা হলঃ

  • ওয়ার্ডপ্রেসের তুলনায় ব্লগার খুবই লিমিটেড একটা ওয়েবসাইট তৈরির প্লাটফর্ম। এই প্লাটফর্মটি মূলত ব্লগিং এর জন্য তৈরি করা, তাই আপনি যদি কোন প্রফেশনাল বা বিজনেস ওয়েবসাইট বানাতে চান তবে ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করাটা সবচেয়ে বুদ্ধিমানের কাজ হবে, কারণ ওয়ার্ডপ্রেসে আপনি ব্লগারের তুলনায় শতগুণ বেশী ফিচার, প্লাগইনস ও কাস্টমাইজেশন অপশন পাবেন।
  • ব্লগারে আপনার নিজস্ব কোন ডাটাবেস থাকবে না যার কারণে আপনি ওয়ার্ডপ্রেসের ইউজার রেজিট্রেশনের মত কোন ফিচার পাবেন না।
  • ব্লগার প্লাটফর্ম ব্যবহার করে আপনি যদি টিউন করেন তবে যে টিউন URL তৈরি হবে সেটা আর্কাইভ ফরম্যাটে হবে আর শেষে .html যুক্ত হবে। উদাহরণস্বরূপঃ xyz[.]blogspot[.]com/2017/07/how-to-edit-blogger-post.html। আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেসের মত ডাইনামিক টিউন URL চান, সেটা আপনি কখনই ব্লগার দিয়ে করতে পারবেন না।
  • ব্লগারে আপনার সমস্ত টিউনগুলো গুগলের সার্ভারে জমা থাকবে, তাই কোন কারণে যদি আপনার সাইটটি গুগল বন্ধ করে দেয় তবে সমস্ত টিউন হারিয়ে যাবার একটা সম্ভাবনা থাকবে।

ওয়েব আর্কাইভ থেকে ব্লগারের কিছু ছবি

নিচের ছবিগুলোতে দেখে নিন সময়ের সাথে সাথে ব্লগার ডট কম কিভাবে পরিবর্তিত হয়েছে।

blogger 1999 homepage

১৯৯৯ সালের ব্লগার ডট কমের হোম পেজ।

blogger 2003 homepage

২০০৩ সালের ব্লগার ডট কমের হোম পেজ।

blogger homepage 2006

২০০৬ সালের ব্লগার ডট কমের হোম পেজ।

blogger homepage 2011

২০১১ সালের ব্লগার ডট কমের হোম পেজ।

blogger homepage 2013

২০১৩ সালের ব্লগার ডট কমের হোম পেজ।

Written by –  ইমতিয়াজ ইবনে আলম

Posted in Graphics, Web Design and tagged , , , .

Leave a Reply